ইন্টারনেট ও এ সম্পর্কিত কিছু তথ্য

• ফেসবুকের জনক—মার্ক জুকারবার্গ।• ইউটিউব হলো ভিডিও শেয়ারিং সাইট।
• বিশ্ব নিরাপদ ইন্টারনেট দিবস—১০ ফেব্রুয়ারি।• ইন্টারনেটের জন্ম—১৯৬৯ সালে
• গ্লোবাল ভিলেজ ধারনার জন্ম দেন—মার্শাল ম্যাকলুহান।
• ইন্টারনেট হলো সারা পৃথিবী জুড়ে বিস্তৃত পরস্পরের সাথে সংযুক্ত অনেক গুলো কম্পিউটার নেটওয়ার্কের সমষ্টি।
• যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৯৮ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি প্রথম ইন্টারনেট পরিচালনার কাজে হাত দেয় আইসিএএনএন।
• মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের অভ্যন্তরীণ যোগযোগ ব্যবস্থা গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে ইন্টারনেটের গোড়াপত্তন ঘটে।

• ইন্টারনেট মুক্ত চর্চাকে বহাল রাখা হয়েছে ২০১৫ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত।
• ইন্টারনেটের জনক—ভিন্টন গ্রে কার্ফ ।
• ইন্টারনেট শব্দটি ইন্টারন্যাশনাল নেটওয়ার্ক শব্দ থেকে গৃহীত।
• বহুল প্রচলিত ইন্টারনেট ব্রাউজার হলো—অপেরা, মজিলা ফায়ারফক্স, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, রকমেল্ট, গুগলক্রোম প্রভৃতি।
• সার্ভার বিভিণ্ন প্রকার ওয়েভসার্ভার, এনএনপিটি সার্ভার, ডাটাবেজ সার্ভার, এফটিপি সার্ভার।
• ডাটাবেজ সার্ভারের মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করা হয়।
• বিভিন্ন ডাটাবেজ সফটওয়্যার..মাইএসকিউএল,এমএসএসকিউএল,ওরাকল,আইবিএম ইত্যাদি।
• ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব হলো ইন্টারনেট দিয়ে দর্শনযোগ্য আন্তঃসংযোগকৃত তথ্যাদির একটি ভান্ডার।
• ১৯৮৯ সালে পদার্থবিদ টিম বার্নাস লির ধারণা থেকে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব গড়ে ওঠে।

• ওয়েব হচ্ছে একটি পদ্ধতি যা সাধারণত কোন কিছু প্রকাশনার কাজে ব্যবহৃত হয়।
• ওয়েব পেজ বা সাইট হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের একটি ডকুমেন্টেশন।
• ওয়েব পেজ বা সাইট গুলোতে সাধারণত এইচটিএমএল,জাভা বা সিএসএস ইত্যাদি বেসিক ল্যাংগুয়েজ ব্যবহার করা হয়।
• ওয়েব ব্রাউজার কম্পিউটারের একটি প্র্রোগ্রাম যার মাধ্যমে ইন্টারনেটের কোন পেজ ব্রাউজ করা যায়।
• একটি ওয়েব ব্রাউজারকে শুধু মাত্র ব্রাউজারও বলা হয়।
• সকল প্রকার সার্ভারে এইচটিটিপ প্রোটোকল ব্যবহার করা হয়।
• অ্যাডরেস বার ওয়েব পেজের ওপরে থাকা একটি টেক্সট লেখার যায়গা যেখানে বর্তমান ওয়েব পেজের ইউআরএল প্রদর্শিত হয়।

• বিশ্বে আপার নেট নেটওয়ার্কের মাধ্যমে প্রথম ইমেইল পাঠানো হয়।
• ইমেইলের জনক—রে টমলিনসন।
• এনএনটিপি প্রোটোকল ব্যবহৃত হয় বিশ্ব ব্যাপী ছড়িয়ে থাকা বুলেটিন বোর্ড ম্যাসেজ আদান প্রদানের জন্য।
• স্বল্প সংখ্যক টেলিফোনের একটির সাথে আরেকটির সংযোগ থাকাকে ইন্টারকম বলে।
• ডমেইন নেম নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠানের নাম—ইন্টারনেট করপোরেশান ফর এসাইংড নেম এন্ড নাম্বারস (আইসিএএনএন)।
• আইপি বা ইন্টারনেট প্রোটোকল নামের এক প্রামাণ্য ব্যবস্থার মাধ্যমে ডাটা আদান প্রদান করা হয়।
• ইমেইল হচ্ছে কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বার্তা পাঠানোর একটি বিশেষ পদ্ধতি।
• ইমেইল এর পূর্ণ রুপ—ইলেক্ট্রনিক মেইল।• আইসিএএনএন এর প্রতিষ্ঠা ১৮ সেপ্টেম্বর ১৯৯৮।
• ডমেইন নাম এবং তার পুরো নাম মিলে যে সম্পূর্ণ ঠিকানা হয় তাই হচ্ছে ইউআরএল।

• একই নেটওয়ার্কে অবস্থিত কম্পিউটার গুলোর মাঝে ফাইল আদান প্রদান এফটিপি।
• ইমেইল পাঠ ও প্রেরণের জন্য ব্যহৃত হয় ইমেইল ক্লায়েন্ট।
• আইসিএএনএন এর সদর দপ্তর ক্যালিফোর্নিয়া।
• ইন্টারনেট জগতে প্রথম ডমেইন নাম ডটকম রেজিষ্ট্রেশান করা হয় ১৫ মার্চ ১৯৮৫।
• সার্চ ইঞ্জিনের জনক—এলান এমটাজ
• জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুলো হলো—গুগল,ইয়াহু, বিং,আস্ক ডটকম,ইয়োদো,ব্লেকো,ইয়ানডেক্স,গুজি,বাইডু,ইনফো ডটকম,গুড চার্চ প্রভৃতি।
• সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় বিষয় খুজে পাওয়া যায়।
• গুগলের জনক—ল্যারি পেইজ ও সার্জিও ব্রিন।
• ব্লগিং এর জনক—ইভান উইলিয়ামস।

• মুক্ত সফটওয়্যারের জনক—রিচার্ড ম্যাথিউ ষ্টলম্যান।
• ইয়াহু! এর জনক—ডেভিড ফিলো এবং জেরি ইয়াং।
• টুইটারের জনক—জ্যাক ডোরসে,নোয়া গ্লাস,ইভান উইলিয়ামস ও বিজ স্টোন।
• জনপ্রিয় সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট—ফেসবুক,টুইটার,ডায়াসপোরা,মাইস্পেস,অরকূট ইত্যাদি।
• ইউটিউবের জনক—জাভেদ করিম(বাংলাদেশ),চ্যাড হারলি ওবং স্টিভ চ্যান।
• ২০০৫ সালে প্রথম মুক্ত ওয়েবসাইট হিসেবে ইউটিউবের যাত্রা শুরু হয়।
• ইউটিউবের স্লোগান—ব্রডকাষ্ট ইয়োরসেলফ।
• WAV এর পূর্ণরুপ–Waveform Audio file Formet.

• আইআরসি কে রিয়েল টাইম ইমেইল বলা হয়।
• আইএসপি এর পূর্ণরুপ—ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার।
• এনএনটিপি এর পূর্ণরুপ—নেটওয়ার্ক নিউজ ট্রান্সফার প্রোটোকল।
• ল্যান,ম্যান,ওয়ান –তিনপ্রকারের কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং।
• ল্যান এর পূর্ণরুপ—লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক।
• ম্যান এর পূর্ণরুপ—মেটরোপলিটন এরিয়া নেটওয়ার্ক।
• ওয়ান এর পূর্ণরুপ—ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক।
• এফটিপির পূর্ণরুপ—ফাইল ট্রান্সফার প্রোটোকল।
• ইউআরএল এর পূর্ণরুপ—ইউনিভার্সাল রিসোর্স লোকেটর।
• এইচটিএমএল এর পূর্ণরুপ—হাইপার টেক্সট মার্কআপ ল্যাঙ্গুয়েজ।
• এইচটিটিপি এর পূর্ণরুপ—হাইপার টেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল।
• এক্সটিএমএল এর পূর্ণরুপ—এক্সটেনশান মার্কআপ ল্যাঙ্গুয়েজ।
• আইআরসি এর পূর্ণরুপ—ইন্টারনেট রিলাই চ্যাট।
• যে ব্যাক্তি হ্যাকিং প্র্যাকটিস করে তাকে বলে—হ্যাকার।
• 408 রিকোয়েস্ট টাইম আউট দিয়ে বোঝানো হয়-অনুরোধ করে সার্ভারে সাড়া পাওয়ার সময়।
• সাবমেরিন কেবল হলো এক ধরনের কেবল বা তার। যার মাধ্যমে যোগাযোগ প্রযুক্তি বাহিত হয়।
• 400 ব্যাড রিকোয়েস্ট দিয়ে বোঝানো হয় অনুরোধ যথাযথ প্রক্রিয়ায় করা হয়নি।
• 413 রিকোয়েস্ট এন্ট্রি ঠু লার্জ দিয়ে বোঝানো হয়,ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি পরিমাণ অনুরোধ সাভারে পাঠানো হয়েছে।

• 404 not found দিয়ে বোঝানো হয়,বর্তমানে পাওয়া যাচ্ছেনা,তবে পরে পাওয়া যেতে পারে।
• হ্যাকিং হলো কারো কম্পিউটারের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তার গোপন কিছু ব্যাবহার করা।
• 410 gone দ্বারা বোঝানো হয় বর্তমানে পাওয়া যায়নি পরেও পাওয়া যাবেনা।
• হ্যাকারদের মধ্যে উচ্চ সম্মানে আসীন হ্যাকারদের বলা হয় এলিট হ্যাকার।
• একটি আধুনিক সাবমেরিন কেবলে সাধারণত আট স্তরের তার থাকে।
• 204 No Content দিয়ে বোঝানো হয় সাভারে কোন উপাদান(কন্টেন্ট) পাওয়া যায়নি।

• 203 Non-Authoritative Information (since HTTP/1.1) দিয়ে বোঝানো হয় সার্ভার যে তথ্য দিচ্ছে তা অন্য কোন সুত্র থেকে আসছে।
• 403 Forbidden দিয়ে বোঝানো হয় সার্ভার অনুরোধ গ্রহণ করেনি।
• 502 Bad Gateway দিয়ে বোঝানো হয় নির্দিষ্ট ঐ সার্ভার প্রক্সি বা গেটওয়ে হিসাবে চলছিল।

আমরা রোজ ইন্টারনেটে কত কিছুইনা দেখি জানি খুজি তার কোন হিসাব নেই। সেই সব বিষয় থেকে কিছু তুলে ধরলাম যার মুখোমুখি আমাদের মাঝে মাঝে হতে হয়। তবে এর অধিকাংশই হয়তো সবাই আগে থেকে জানতো। তার পরও যদি কারো উপকারে আসে তাই তুলে ধরলাম।কষ্ট করে এই লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

সংগ্রহেঃ জাজাফীএস এম হলঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

আপনাকে কমেন্টস করতে হলে অবশ্যই লগইন করতে হবে লগইন

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম