শ্রাবণ বর্ষায়


এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়,
কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়।
যখন গ্রীষ্মের খরতাপে তপ্ত ভুবন,
জীয়ন্ত করতে তাকে বহে বর্ষণ।
বর্ষণে তপ্ত ধরণী সিক্ত হয়ে যায়,
এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়,
কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়।

নিসর্গ প্রদীপ্ত যখন গ্রীষ্মের তাপদাহে,
শান্তির পরশ দিতে বহে বৃষ্টি বহে,
স্তিমিত হিল্লোল গায়ে দোল দিয়ে যায়,
জবজবে পবনে সবে শান্তির ছোয়া পায়,
এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়,
কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়।

দেখে আকাশে কালো মেঘের ওড়াউড়ি,
রাখাল ছেলারা সব করে দৌড়া-দৌড়ি,
গরু-ছাগল নিয়ে তারা ঘরে ফিরে যায়,
অনুষ্ণ হয় মর্তভূমি শ্রাবণ বর্ষায়,
এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়,
কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়।

আছে যত পাড়ার সকল দুষ্ট ছেলের দল,
অবগাহন করছে তারা পেয়ে বর্ষার জল,
ষড়ঋতুর আমাদের এই চিরন্তর বাংলায়,
বর্ষা ঋতু আসে তার আপন মহিমায়।
এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়,
কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়।

আপনাকে কমেন্টস করতে হলে অবশ্যই লগইন করতে হবে লগইন

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম