আত্মবিশ্বাস

confidenceবাঁচার আশা ফিফটি ফিফটি । একথাটি ডাক্তার বলেছিলেন ‘অনুরাগ বসুকে’, ২০০৪ সালে যখন তার ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়েছিলো। ‘লাইফ ইন মেট্রো’ আর ‘বরফি’র মতো চলচ্চিত্র যার হাত ধরে নির্মিত হয়েছে, সেই অনুরাগ বসু ডাক্তারের কথাকে ভুল প্রমানিত করেন। বেঁচে থাকার দৃঢ় মনোবল আর আত্মবিশ্বাস, ডাক্তারের সেই ফিফটিকে তিনি ১০০ তে দাড় করান। আত্ববিশ্বাস হারানো মানুষকে মৃত মানুষের সাথে তুলনা করা যায় । আত্মবিশ্বাসের অভাবে ভূগতে থাকা মানুষ অনেক সহজ গন্তব্যকেও কঠিন বানিয়ে ফেলে ।

ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি কিভাবে বদলে দিতে পারে জীবন, তার অন্যতম উদাহরন ‘কাইলি মিনগ’। বলিউড তাকে চিনে ‘চিগি উইগি গার্ল’ বলে। অক্ষয় কুমারের সাথে অভিনয় করা এই গায়িকা আক্রান্ত হয়েছিলেন ক্যান্সারে। তবু আত্মবিশ্বাস হারাননি। হাসিমুখ মলিন হলেও ভেঙ্গে পরেননি। চিকিৎসা শেষে ফের হাসিমুখেই ফিরে এসেছেন মঞ্চে। প্রতিনিয়ত মানুষ নেতিবাচক চিন্তা করে যাচ্ছে। যা তার মধ্যে থাকা প্রতিভাকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। নেতিবাচক চিন্তা করার মানুষিকতা এখনই বাদ দিন। আত্মবিশ্বাসী মানুষ মাত্রই ইতিবাচক। সব সম্ভব একজন আত্মবিশ্বাসী মানুষের দ্বারা।

বলিউডের মেগাষ্টার উনি। শুধু একনজর এই ষ্টারকে দেখার জন্য হাজারো মানুষ তার বাড়ির সামনে অপেক্ষা করে। আমি অমিতাভ বচ্চনের কথা বলছি। জি উনার একসময় থাকার জায়গা ছিলো না। এলাহাবাদ থেকে আগত এই মেগাষ্টারকে দিনের পর দিন মেরিন ড্রাইভের বেঞ্চেই রাত কাটাতে হতো । তার ভাষায়-আমার আত্মবিশ্বাস আর পরিশ্রমই আমার সফলতা। আমাকে দিয়ে এটা হবে না আমাকে দিয়ে ওটা হবে না আমি পারি না। এসব চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন।

১৫০০ টাকা হাতে নিয়ে বের হওয়া ছেলেটি এখন বিশ্বের অন্যতম ধনী তারকা। যশ চোপড়ার হাত ধরে ‘ডর’ ছবির মাধ্যমে বলিউড ছবির জগতে আসেন তিনি। ইনি হচ্ছেন ‘জি ওয়ান’ মানে শাহরুখ খান। বলিউডের পরিশ্রমী এই সুপারষ্টার তার প্রতিটি পদক্ষেপে আত্মবিশ্বাসী। একমাত্র সেই কোনো ভুল করে না, যে কিছুই করে না। তাই বলে আত্মবিশ্বাস হারানো উচিত নয়। মনে রাখবেন , আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলা মানে নিজেই নিজেকে হত্যা করা। ‘আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট’।  তাকে গভীর সমূদ্র দ্বীপে নির্বাসিত করা হয়েছিলো। সেখানে যেয়েও তিনি আত্মবিশ্বাস হারাননি।  নির্বাসিত অবস্থায় বলেছিলেন।

আই এ্যাম এ মোনার্ক অফ অল আই সার্ভে: মাই রাইট হেয়ার ইজ নান টু ডিসপুট ফ্রম দ্য সেন্টার অল আই এ্যারাউন্ড টু দ্য সি’। অর্থাৎ আমার চারিধারে যতদূর দৃষ্টি যায় এর এখন আমি রাজা, এখানে আমার বিরুদ্ধে তর্ক তোলার আর কেউ নেই। তাই দৃঢ় মনোবলের অধিকারী হওন , আত্মবিশ্বাসী হওন।

– জীবন বদলে যাবে।।

আপনাকে কমেন্টস করতে হলে অবশ্যই লগইন করতে হবে লগইন

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম