সম্পুর্ণ হলো বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও ব্যবহারিক ক্লাস

কুলিয়ারচরে সফল ভাবে সম্পুর্ণ হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক ব্যবহারিক ক্লাস।  যেখানে অংশ গ্রহন করে কুলিয়ারচর উপজেলার পঞ্চম থেকে সপ্তম শ্রেণির ৩২০০ ছাত্রছাত্রী এবং ক্লাসটি পরিচালনা করেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল।  ক্লাস পরিচালনায় অধ্যাপক জাফর ইকবালকে সহায়তা করেন কুলিয়ারচর উপজেলার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের বিজ্ঞান ও আইসিটি বিষয়ক ৮০ জন শিক্ষক।  আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহম্মেদ পলক (এম,পি),  বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপন এবং সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বিশিষ্ঠ শিল্পপতি  ইমতিয়াজ বিন মুছা জিসান।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ব্যবহারিক ক্লাসটির জন্য ২৪৬ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৭২ ফুট প্রস্থের একটি অস্থায়ী ক্লাসরুম ও পুরো স্থানটিতে ২১টি এলইডি স্ত্রিন বসানো হয়েছিলো।  এবং ক্লাসটি দুই পর্বে ভাগ করা ছিলো, প্রথম পর্বে ছিলো দেড় ঘণ্টার ব্যবহারিক ক্লাস এবং দ্বিতীয় পর্বে হলো আলোচনা সভা।  এর আগে ১৬ অগাস্ট ২০১৬ইং অস্ট্রলিয়ার জাতীয় বিজ্ঞান সপ্তাহ উপলক্ষে অষ্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডে একসঙ্গে ২৯০০ ছাত্রছাত্রীর জন্য বিজ্ঞান বিষয়ক ব্যবহারিক ক্লাসের আয়োজন করে এই রেকর্ড গড়েছিলো তারা।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই বিজ্ঞান ও আইসিটি বিষয়ক ব্যবহারিক ক্লাসটিকে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্ত করতে গিনেস কমিটির কাছে গত বছরের ৪ এপ্রিল আবেদন করা হয়েছিল এবং আবেদনটি “গিনিচ বুক কমিটি গত ১৪ নভেম্বর এই আবেদন গ্রহণ করে।”

আবেদন গ্রহনের পর ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ব্যবহারিক ক্লাসটি’ গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আয়োজন করেন কুলিয়ারচর উপজেলার ইউএনও উর্মি বিনতে সালাম।

লিখেছেনঃ  আলী হায়দার শাহীন

আপনাকে কমেন্টস করতে হলে অবশ্যই লগইন করতে হবে লগইন

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম