অষ্টগ্রাম উপজেলা

অষ্টগ্রাম উপজেলাটির আয়তন ৩৩৫.৫৩ বর্গ কি:মি। এ উপজেলার উত্তরে মিঠামাইন, দক্ষিনে নাসিরনগর, পূর্বে লাখাই এবং পশ্চিমে বাজিতপুর উপজেলা অবস্থিত।

নাম করণঃ
অষ্টগ্রাম উপজেলা একটি হাওড় বেষ্টিত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন উপজেলা। যার ভৌগলিক অবস্থান ২৪0 ১৬/ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯১০৭/ পূর্ব দ্রাঘিমাংশে। অষ্টগ্রাম উপজেলার উত্তরে কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন ও ইটনা, দক্ষিণে বি,বাড়ীয় জেলার নাছির নগর, পূর্বে বি,বাড়ীয়া জেলার নাছিরনগর উপজেলা ও হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলা, পশ্চিমে কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর ও নিকলি উপজেলা।

অষ্টগ্রাম উপজেলাটির অষ্টগ্রাম নামকরণের পিছনে তিনটি মতবাদ প্রচলিত আছে।

প্রথম মতবাদঃ
১। অষ্টগ্রাম ২। আসিয়া ৩। দুবাই ভাটেরা ৪। নরসিংহ পূর্ববাদ ৫। খাসাল ৬। বীরগাঁও ৭। বত্রিশ গাঁও ৮। বারেচর নিয়ে গঠিত হওয়ায় এই জনপদের নাম অষ্টগ্রাম রাখা হয় বলে মতবাদ রয়েছে। বর্তমানে এগুলো মৌজা হিসাবে পরিগণিত।

দ্বিতীয় মতবাদঃ
খ্রিষ্ট্রীয় দ্বাদশ শতকে বঙ্গাধিপতি বলস্নাল সেনের কৌলিন্য প্রথার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে বলস্নাল সেনের অধিসামমত্ম অনমত্ম দত্ত অষ্টগ্রামের কান্তুল নামক স্থানে বসতি স্থাপন করেন। অনমত্ম দত্তের সঙ্গে তার গুরু শ্রী কষ্ঠদ্বিজ এবং অনচরবর্গ এই এলাকায় আসেন। তারা এই এলাকার আটটি গ্রামে বসতি স্থাপন করার পর অষ্টগ্রাম নামের উৎপত্তি হওয়ার জনশ্রম্নতি আছে।

তৃতীয় মতবাদঃ
হযরত শাহজালাল (রঃ) এর সঙ্গীয় আটজন আউলিয়া অষ্টগ্রামে অসেছিলেন। তাই অষ্টগ্রামকে আট আউলিয়ার গাঁও বলা হয়।

প্রধান নদী সমূহঃ
৩টি; মেঘনা, বরাক, ঘোড়াউত্রা; এখানকার প্রধান বিল হচ্ছে বন্দ্রা, ধোপা, টুপা, মদন, পদ্মা।

অষ্টগ্রাম শহরঃ
শহরটিতে একটি মৌজা রয়েছে।এর আয়তন ২.১৫ বর্গ কি:মি এবং লোকসংখা ১৫২৩০;পুরুষ ৫০.৯৩%,মহিলা ৪৯.০৭%। জনসংখ্যার ঘনত্ব ৭০৮.৪বর্গ কিমি।এ শহরে একটি ডাকবাংলো আছে।শহরের স্বাক্ষরতার হার ৫৫.১%।

উল্লেখ্যযোগ্য স্থান বা স্থাপনাঃ
১. ঐতিহাসিক কুতুব শাহ্ মসজিদ
২. কাস্ত্তল পাথরের মসজিদ
৩. কাস্ত্তল (ঈশা খাঁ ও মানসিংহের যুদ্ধস্থল)
৪. হাবিলী বাড়ি (মাজার)

প্রশাসনঃ

অষ্টগ্রাম  থানা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯১৫সালে এবং বর্তমানে এটি একটি উপজেলা।এতে ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ,৫৯টি মৌজা,১৭৩টি গ্রাম আছে । ধর্মীয় প্রতিস্ঠানঃ মসজিদ ১২৫, মন্দির ১২, গীর্জা ৪

জনসংখ্যাঃ পুরুষ ৫১.৪১%, মহিলা ৪৮.৫৯%; মুসলিম ৮২.৮৪%, হিন্দু১৫.৬৪%; পৌত্তলিক ও অন্যান্য ১.৫২%।

স্বাক্ষরতা এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানঃ গড় স্বাক্ষরতা ১৪.১%; পুরুষ ১৮.৪%, মহিলা৯.৪%

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানঃ
কলেজ ১টি,উচ্চ বিদ্যালয় ৪টি, জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় ১টি, মাদ্রাসা ১২টি,সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৪৫টি,বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৫টি।

সাংস্কৃতিক সংগঠনঃ
সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা ক্লাব ১টি,পাবলিক লাইব্রেরী ১টি, খেলার মাঠ ৩০টি।

প্রধান পেশাসমূহঃ
কৃষি ৪৮.৫৫%,মাছ ধরা ৩.৪৩%,কৃষি মজদুরি ২৯.৩৬%,দিনমজুর ২.৪৭%, ব্যবসায় ৫.৫৩%, চাকুরী ১.৭৫%, অন্যান্য৮.৯১%

জমির ব্যবহারঃ
মোট চাষ উপযোগী জমির পরিমান ২২৮৯৯.০৭ হেক্টর, পতিত জমি ৩০৩।৫২ হেক্টর, এক-ফসলী ৭৯.২৪%,দ্বি-ফসলী ১৯.৫০%, ত্রিফসলী ১.২৬%।

কৃষকের মাঝে জমির নিয়ন্ত্রন ৩৬% ভূমিহীন, ২০%ছোট, ৩০%মাঝারী, ১৪% ধনী চাষী।

জমির মূল্যঃ প্রথম মানের ০.০১ হেক্টর জমির মূল্য প্রায় ৫০০০টাকা।

প্রধান শস্য ধান, সরিষা, আলু, মটরঁশুটি, তিল।

বিলুপ্ত বা প্রায় বিলুপ্ত শস্য পাট।

প্রধান ফল আম, কাঁঠাল, কলা, পেঁপে কাল জাম।

মাছ চাষ, পশুপালন, পোল্ট্রিঃ মাছের খামার ২৫টি, পোল্ট্রি ৪টি, হ্যাচারী ১০টি।

যোগাযোগ ব্যবস্থাঃ পাঁকা রাস্তা ২কিঃমি, মাটির রাস্তা ২১৪কিঃমি।

ঐতিহ্যবাহী যানবাহন পাল্কি, মহিষের গাড়ি, ঘোড়ার গাড়ি, গরুর গাড়ি। এই যানবাহনগুলো বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায়।

হাট, বাজার, মেলাঃ মোট হাট বাজার ৯টি, তার মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য হচ্ছে অষ্টগ্রাম, আদমপুর, শরিফনগর, মেলা ২, বাংগালপাড়া ও আব্দুল্লাহপুর।

প্রধান রপ্তানীজাত পণ্য ধান, আলু, পেঁপে, কলা, চীনাবাদাম।

এন.জি.ও কার্যক্রমঃ কার্যত গরুত্তপূর্ন এন.জি.ও গুলো হচ্ছে ব্রাক, প্রশিকা, গণ উন্নয়ন, ICDC ।

স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহ: উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র ১টি,পল্লী স্বাস্থ্য কেন্দ্র ১টি,  ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র ১টি।

আপনাকে কমেন্টস করতে হলে অবশ্যই লগইন করতে হবে লগইন

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম