আর্কাইভ হতে, বিভাগঃ ‘শহীদ ব্যক্তিত্ব’

প্রগতির রক্তস্রোতে মেশে রক্ত যার, আমি তার, আমি শুধু তার

প্রগতির রক্তস্রোতে মেশে রক্ত যার, আমি তার, আমি শুধু তার

অাড়াই যুগ আগে টিটো ভাই (সৈয়দ আমিনুল হুদা টিটো) তাঁর একটি কবিতায় এ কথাগুলো লিখেছিলেন। আপাদমস্তক বিপ্লবী এ মানুষটি স্বেরাচার এরশাদবিরোধী আন্দোলন চলাকালীন ১৯৮৭ সালের ১০ নভেম্বর ‘ঢাকা অবরোধ’ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে পুলিশের গুলিতে শহীদ হয়েছিলেন। ২৮ বছর হয়ে গেলেও তাঁর আত্মদানের স্বীকৃতি মেলেনি। তাঁর পরিবার পায়নি সামান্য রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন। টিটোর লাশের হদিসও পায়নি পরিবার। […]

আবদুল জব্বার (বীর প্রতীক)

আবদুল জব্বার (বীর প্রতীক)

মুক্তিযোদ্ধাদের মূল দল আক্রমণের লক্ষ্যে রওনা হলো সীমান্তসংলগ্ন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ঘাঁটির উদ্দেশে। একই সময় আরেক দল রওনা হলো কাট অফ পার্টি হিসেবে। এই দলে আছেন আবদুল জব্বার। তাঁরা সীমান্ত অতিক্রম করে মধ্যরাতে অবস্থান নিলেন সড়কের ধারে। সেখানে চারদিকে ঝোপঝাড়। এর আড়ালে মুক্তিযোদ্ধারা অপেক্ষা করতে থাকলেন। তাঁরা জানেন, তাঁদের মূল দল পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ঘাঁটিতে আক্রমণ করামাত্র […]

শহীদ আবু মঈন মো. আশফাকুস সামাদ, বীর উত্তম

শহীদ আবু মঈন মো. আশফাকুস সামাদ, বীর উত্তম

গভীর রাত। মুক্তিযোদ্ধারা নিঃশব্দে এগিয়ে যেতে থাকলেন। তাঁরা দুটি দলে বিভক্ত। একটি দলের নেতৃত্বে আবু মঈন মো. আশফাকুস সামাদ। তাঁদের লক্ষ্য পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ক্যাম্প। কিন্তু যাওয়ার পথে তাঁরা নিজেরাই আক্রান্ত হলেন শত্রু পাকিস্তানি সেনাদের হাতে। আকস্মিক বিপর্যয়ে বিচলিত হলেন না আবু মঈন মো. আশফাকুস সামাদ। সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবিলা করে বীরত্বের সঙ্গে যুদ্ধ করতে থাকলেন। […]

এ ওয়াই এম মাহফুজুর রহমান, বীর বিক্রম

এ ওয়াই এম মাহফুজুর রহমান, বীর বিক্রম

হেঁয়াকো খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার অন্তর্গত। রামগড় থেকে ১৬ কিলোমিটার এবং চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি উপজেলা সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে। করেরহাট-রামগড় সড়ক হেঁয়াকোতে এসে উত্তর দিকে বাঁক নিয়ে আবার পূর্ব দিকে গেছে। পাহাড়ি এলাকা। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ভৌগোলিক ও সামরিক দিক থেকে হেঁয়াকো ছিল গুরুত্বপূর্ণ। কাছেই ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত। সেখানে ছিল পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সুরক্ষিত একটি […]

এ এফ এম আবদুল আলীম চৌধুরী

এ এফ এম আবদুল আলীম চৌধুরী

১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সাল৷ স্বাধীনতার গর্বে বিশ্বের মানচিত্রে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ৷ শত বছরের কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতাকে পেয়ে রাস্তায় নেমে এসেছে হাজার হাজার মানুষ৷ মিছিল হচ্ছে দেশজুড়ে৷ মিছিলে হাতে হাতে নতুন পতাকা৷ বাড়ির ছাদে উড়ছে নতুন পতাকা৷ সবুজ-শ্যামল বাংলার বুকে যেন রক্তস্নাত এক নতুন সূর্য উঠেছে৷ ঢাকার রাস্তায় রাস্তায় মিছিল হচ্ছে৷ মিছিল দেখলেই ছুটে যাচ্ছেন শ্যামলী […]

শহীদ লেঃ এ কে এম ফারুক

শহীদ লেঃ এ কে এম ফারুক

তিনি বাজিতপুর পৌ্র এলাকার বসন্তপুর গ্রামের আবু তালেবের পুত্র। ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দে এমবিবিএস পাশ করার পর তৎকালীন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে লেফটেনেন্ট হিসাবে যোগদান করেন। ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি কুমিল্লা সেনানিবাসে একই পদে নিয়োজিত ছিলেন ।৩০ মার্চ ৭১ সকাল বেলায় তিনি নিজ বাসায় গর্ভবতী স্ত্রী ও শিশুপুত্র এ কে এম তারেককে নিয়ে নাস্তা করছিলেন। এ সময় পাকহানাদার […]

শহীদ আঃ মোতালিব

শহীদ আঃ মোতালিব

আঃ মোতালিব হিলচিয়া ইউনিয়উনের অন্তর্গত সরিষাপুর গ্রামের এক নিম্ন মধ্যবিও পরিবারে জন্মগ্রহন করেন ।পিতা মৃত আঃ আজিজ ।শৈশবে পিতাকে হারিয়ে সংসারের দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নিতে হয়েছিল বলে লেখাপড়া করতে পারেননি ।কিন্তু ভাবলে অবাক হতে হয়,আঃ মোতালিবই সরিষাপুরের প্রথম ব্যক্তি যিনি কারো সঙ্গে কিছু না বলে সবার অলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের উদ্দ্যেশে সীমান্ত অঞ্চলে চলে গিয়েছিলেন […]

একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল জাহান

একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল জাহান

অগনিত শহীদের আত্মোৎসর্গে স্বাধীন হয়েছিল আমাদের এদেশ। পরম গৌরবে মন্ডিত মুক্তিযুদ্ধের সেই দিনগুলোর ভেতর চরম শোকের অসংখ্য ঘটনা আছে।সেই সব শোক ও গৌরবের একটি হচ্ছে খায়রুল জাহানের আত্মদান। ছোটবেলা থেকে খায়রুল জাহান ছিলেন সাহসী প্রকৃতির, যে কোন অন্যায়ের প্রতিবাদ করতেন ১৯৭১ সালে ছিলেন ২০ বছরের তরুণ। পড়াশুনা করছিলেন ময়মনসিংহ কারিগরী মহা বিদ্যালয়ে। পাকিস্থান বিমান বাহিনীতে […]

শহীদ মোঃ নূরুল ইসলাম

শহীদ মোঃ নূরুল ইসলাম

হিলচিয়া ইউনিয়নের হিলচিয়া গ্রামের যুবক নূরুল ইসলাম ছিলেন একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ।তার পিতার নাম মোঃ আলী ।মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার প্রাথমিক পর্যায় থেকে তিনি হিলচিয়া সম্মিলিত মুক্তিবাহিনীতে যোগ দেন ।প্রশিক্ষণ শেষে স্হানীয়ভাবে আঃ মোতালিব বসুর বাহিনীর সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে বাজিতপুর ও নিকলী অঞ্চলে বেশ কিছু গেরিলা যুদ্ধে অংশগ্রহন করেন । ১১ ডিসেম্বর ৭১ হানাদারের একান্ত দোসরবাহিনীর […]

শহীদ হোছেন আলী

শহীদ হোছেন আলী

দিঘীরপাড় গ্রামের এক সাধারণ পরিবারে হোছেন আলীর জন্ম। পিতার নাম মীর বকস।নৌকার মাঝিগিরি করে জীবন নির্বাহ করতেন। বাজিতপুর ন্যাশনাল ব্যাংক অপারেশনে অংশগ্রহণকারী মুক্তিবাহীনিকে হোছেন আলী অত্যন্ত সাহসিকতায় ভূমিকা নিয়ে নিরাপদ স্হানে পৌছে দিয়েছিলেন ।দালালদের দেয়া সংবাদের ভিওিতে ঘটনার ৪/৫ দিন পর সরারচর মিলিশিয়া ক্যাম্পের একদল মিলিশিয়া তাকে বাড়ি থেকে ডেকে এনে দিঘীরপাড় ব্রিজে ব্রাশ ফায়ারে […]

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম