আর্কাইভ হতে, বিভাগঃ ‘কবিতা’

শ্রাবণ বর্ষায়

শ্রাবণ বর্ষায়

এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়, কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়। যখন গ্রীষ্মের খরতাপে তপ্ত ভুবন, জীয়ন্ত করতে তাকে বহে বর্ষণ। বর্ষণে তপ্ত ধরণী সিক্ত হয়ে যায়, এলোরে এলো বর্ষা এলোরে ধরায়, কদম্বের হাসি নিয়ে এলোরে ধরায়। নিসর্গ প্রদীপ্ত যখন গ্রীষ্মের তাপদাহে, শান্তির পরশ দিতে বহে বৃষ্টি বহে, স্তিমিত হিল্লোল গায়ে দোল দিয়ে যায়, জবজবে পবনে […]

হুলিয়া, নির্মলেন্দু গুন

হুলিয়া, নির্মলেন্দু গুন

আমি যখন বাড়িতে পৌঁছলুম তখন দুপুর, আমার চতুর্দিকে চিকচিক করছে রোদ, শোঁ শোঁ করছে হাওয়া। আমার শরীরের ছায়া ঘুরতে ঘুরতে ছায়াহীন একটি রেখায় এসে দাঁড়িয়েছে৷ কেউ চিনতে পারেনি আমাকে, ট্রেনে সিগারেট জ্বালাতে গিয়ে একজনের কাছ থেকে আগুন চেয়ে নিয়েছিলুম, একজন মহকুমা স্টেশনে উঠেই আমাকে জাপটে ধরতে চেয়েছিল, একজন পেছন থেকে কাঁধে হাত রেখে চিত্কার করে […]

হে বিদ্রোহী বাজাও শ্যামের বাঁশি

হে বিদ্রোহী বাজাও শ্যামের বাঁশি

হে তূর্য্যধারী, ঈস্রাফীলের শিঙ্গায় মাতিয়েছিলে তুমি- রক্তে প্রলয় নাচন। লক্ষ কোটি বাঙ্গালী চেতনায়, সাতচল্লিশ, বায়ান্ন একাত্তুরের রণ বাদন। হে বিদ্রোহী, দ্রোহের মন্ত্রে উজ্জীবিত করেছিলে তুমি- ঘোড় দৌরের ময়দানে। অনাগত কোন কবি, মুক্তির আস্বাদে,বজ্র নিনাদে। হে সাম্যবাদী, এক ডোরে বেঁধে, দিয়েছিলে তুমি- হিন্দু, মুসলিম,বৌদ্ধ মতে যত বাঙ্গালী। গাইতে শেখালে, হামদ, নাথ, আর কীর্তন পদাবলী। হে বংশীধারী, […]

শ্রমিকের চোখে জল

শ্রমিকের চোখে জল

ঐ যে দেখ বড় বড় অট্টালিকা কত, ঐ যে দেখ টাওয়ার সারি দাঁড়িয়ে আছে যত, এসব কিছু তৈরিতে যারা ঝরিয়েছে গায়ের ঘাম, আমরা কি ভাই দিতে পেরেছি তাদের ন্যায্য দাম! ঐ যে দেখ দূর দুরান্তে চলে গেছে রাস্তা আঁকাবাঁকা, ঐ যে দেখ দিবা-রাত্রে ঘুরছে কলের চাকা, এসব কিছু তৈরিতে যারা দিয়েছে তাদের বল, মহাসুখে মহারাজারা, […]

দূর্বোধ্য প্রেম

দূর্বোধ্য প্রেম

অজস্র প্রাণের অন্তরীক্ষে জৈনিক এক প্রাণী ! জীবনের বিচ্ছিন্ন সীমারেখায় হঠাৎ উচ্ছাসিত আচমকা এক জীবকল্পের তপ্ত মোহে ~ সাময়িক লোকচুরী অথবা হিংস্র বন্যতায় নিজেকে কেবলি এক প্রাণী ভাবতে পারায় তোমাকে অভিবাদন ~ এই ক্ষুদ্র প্রানে । অস্তিত্বের প্রান্তরে জ্বলজ্বলে অনুভূতি হয়ে আমার সীমাহীন অন্তযাত্রায় এপাশ হতে ওপাশ অতঃপর  পুনশ্চঃ হয়ে থাকবে অনন্তকাল; অভিমানে, রাগে, ক্ষোভে […]

সত্য যতই অপ্রিয় হোক তবু তাহা সত্য

সত্য যতই অপ্রিয় হোক তবু তাহা সত্য

নিন্দুকেরা যত কথাই বলুকনা কেন মোরে, তবু আমি সত্য কথা বলব সুরে সুরে। সত্য যতই অপ্রিয় হোক তবু তাহা সত্য, সত্যের উপরে পৃথিবীতে নাইরে কোন তত্ত। সত্যের চেয়ে অধিক সুন্দর নাইরে কিছু ভাই, তাইতো বলি সত্য বলতে নাইরে দ্বিধা নাই। সত্য বলতে তুমার সামনে আসুক যতই বাধা, সত্য বলতে কভু তুমি করিওনা দ্বিধা। সত্যের শিখা […]

জানতে চেওনা তুমি কেমন আছি আমি

জানতে চেওনা তুমি কেমন আছি আমি

জানতে চেওনা তুমি কেমন আছি আমি, মনটা কবেই মরে গেছে, শুধু আছে দেহখানি,শুধু আছে দেহখানি। জানতে চেওনা তুমি কেমন আছি আমি, মনটা কবেই মরে গেছে, শুধু আছে দেহখানি,শুধু আছে দেহখানি। অনেক স্বপ্ন বুকে নিয়ে তুমায় বেসেছিলাম ভালো, তুমি হবে আমার ঘরের পূর্ণিমারই আলো। দিয়েছিলে কথা তুমি হাতে রেখে হাত, কথায় কথায় হয়েছে কত রজনী প্রভাত। […]

তাকে আমি ভুলে যাব

তাকে আমি ভুলে যাব

আমি বাসবোনা ভাল তাকে সে আমার নেই সে আমার বিবর্ণদিনের ধূসর ইতিহাস হয়ে থাক আজন্মকাল যেবা ছিল স্মৃতিপটে সব স্মৃতি মুছে যাক। আমি ডাকবোনা তাকে আর, সে অনেক দূরে সে যদি কোন মেঠোপথে হাটে,আমি হাটবোনা সে যদি ফুলের সুবাশ হয় আমি হবো অনাকিষি আমি তাকে আর কভূ ডাকবোনা বলবোনা ভালোবাসি। শ্রাবণের মেঘ হোক হোকনা সে […]

আরেকটা ভোর

আরেকটা ভোর

ভোর হতে না হতেই সরব হয়ে উঠলো সারা দেশ চেনা জানা ভূবন হয়ে উঠলো অচেনা। ছোপ ছোপ রক্তের দাগ সবুজ ঘাসকে করলো লাল ঘর থেকে সাত সকালে যে ছেলে বেরিয়েছিল ফিরে যাওয়া হলোনা মায়ের কোলে তার ছিন্ন ভিন্ন দেহ তখন মেডিকেলের বারান্দায়। গতকাল সকাল থেকে উন্মাদনা ছিল ছিল কোটি কোটি মানুষের অপেক্ষার পালা যে ভোর […]

তবু এ মন স্বপ্ন দেখে

তবু এ মন স্বপ্ন দেখে

জানি তুমি ফিরে কভু আসবেনাকো আর, তবু এ মন সপ্ন দেখে তুমাকে পাবার।। আমায় তুমি নিঃস্ব করে, চলে গেছ বহুদূরে। তুমার জন্য সদায় বুকটা করে হাহাকার, তবু এ মন স্বপ্ন দেখে তুমাকে পাবার।। ও পাষাণী, পাষাণ তুমি, পাষাণ হৃদয় তোর, একটুও দয়া নাই কিরে তোর বুকেরই ভিতর, এত কঠিন কেন, করল বিধি হৃদয়টা তুমার, তবু […]

বিষয় ভিত্তিক পোষ্টগুলো

কারিগরি সহায়তায়:

বিজ্ঞাপন

প্রবেশ - কপিরাইটঃ ২০০৭ থেকে ২০১৪ | কিশোরগঞ্জ ডট কম