কিশোরগঞ্জের কৃতি সন্তান ৭ বারের নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য ও কিশোরগঞ্জবাসীর কাছে ভাটির শাদুর্ল হিসেবে পরিচিত আব্দুল হামিদ আ্যাডভোকেট হতে যাচ্ছেন দেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি।এ খবরে পুরো জেলায় দেখা দিয়েছে আনন্দের বন্যা। কিশোরগঞ্জের গর্ব, ধন্য পিতা-মাতা_হাজী মো. তায়েব উদ্দিন ও তমিজা খাতুন এর সুযোগ্য পুত্র, বিচক্ষণ এবং সর্বাধিক সফল স্পীকার, বাংলার পতি, রাজনৈতিক অস্থিরতার সময়ে বাংলার কান্ডারী, মহামান্য রাষ্ট্রপতি জনাব আ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদকে আমার অন্তরের অন্তরস্থল থেকে মোবারকবাদ ও সালাম জানাচ্ছি।

কিছু দিন আগে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দীকী সাহেব একটি কলামে লিখেছিলেন, শোনা যাচ্ছে, আ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদকে নাকি রাষ্ট্রপতি করা হচ্ছে , আমরা কি রাষ্ট্রপতি পদটি কিশোরগঞ্জে বিক্রি করে দিয়েছি নাকি ? আমার দুঃখ হয় উনি কি কারনে এমন কথা বলেছিলেন? উনার কি কিশোরগঞ্জের প্রতি ক্ষোভ না আ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদের প্রতি ক্ষোভ?  আমার মনে হয় উনার নিজের প্রতি নিজের ক্ষোভ কারণ স্বাধীনতা সংগ্রামে সেক্টর কমান্ডারের ভূমিকা এবং একটি উপাধি থাকার পরও কেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাকে এমন একটি পদের জন্য মনোনয়ন দেন না।

আমি অতি ছোট্ট মানুষ, আমার মোবারকবাদ ও সালাম হয়ত কখনো রাষ্ট্রপতি দেখবেন না।  আমার কমেন্টস, আশা, অভিপ্রায়, এ মোবারকবাদ ও সালাম হয়ত রাষ্ট্রপতি কখনো জানবেন না বা দেখবেন না, তাই পত্রিকার মাননীয় সম্পাদক সাহেবকে অনুরোধ করব, পত্রিকার কোন এক কোনায় যেন আমার এই অনুভূতি টুকু প্রকাশ করেন। রাষ্ট্রপতির প্রতি আমার এ অকৃত্তিম ভালবাসা ও শ্রদ্ধা যেন চির অম্লান ও কালের সাক্ষী হয়ে থাকে।

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম
Sahidul_77@yahoo.com