নিউইয়র্কে ৯/১১ হামলাস্থল গ্রাউন্ড জিরোর পাশে মসজিদ নির্মাণের বিষয়টিকে সমর্থন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। গত শুক্রবার হোয়াইট হাউসে আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে তিনি গ্রাউন্ড জিরো এলাকাটিকে ‘স্পর্শকাতর’ উল্লেখ করে বলেন, অন্য যেকোনো ধর্মাবলম্বীর মতো মুসলমানদেরও যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো স্থানে নিজ ধর্ম পালনের অধিকার আছে।
https://i1.wp.com/dailykalerkantho.com/admin/news_images/255/thumbnails/image_255_81000.jpg?w=1080
২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আল কায়েদা জঙ্গিদের হামলায় ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার ধ্বংস হয়ে যায় এবং সেখানে প্রায় দুই হাজার ৭৫০ জন মারা যায়। সম্প্রতি নিউইয়র্কের একটি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান গ্রাউন্ড জিরোর কাছে ১৩তলা একটি ইসলামিক কমিউনিটি সেন্টার এবং একটি মসজিদ নির্মাণ পরিকল্পনার ঘোষণা দেয়। মুসলমানদের সঙ্গে সম্পর্ক গভীর করার জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানায় তারা। নিউইয়র্ক নগর কর্তৃপক্ষ ‘করডোবা হাউস’ নামের এই ভবনের পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে। তবে ৯/১১ হামলার ঘটনায় নিহতদের আত্দীয়স্বজন এবং রিপাবলিকান দলের কয়েক নেতা ওই পরিকল্পনার বিরোধিতা করছে। পরিকল্পনার সমর্থক এবং এতে বিনিয়োগকারীদের বিষয়ে তদন্তের দাবি জানাচ্ছে।
হোয়াইট হাউসে ইফতার ও এরপর নৈশভোজে কংগ্রেস সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা এবং বিদেশি কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন। সেখানে প্রথমবারের মতো ওই মসজিদ নির্মাণ প্রসঙ্গে কথা বললেন ওবামা। তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় স্বাধীনতার প্রতি আমাদের অঙ্গীকার অটল থাকবে। যুক্তরাষ্ট্রের একজন নাগরিক এবং প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার বিশ্বাস, অন্য যেকোনো নাগরিকের মতো মুসলমানদের অধিকার রয়েছে দেশের যেকোনা স্থানে তাদের ধর্ম পালনের। লোয়ার মানহাটনে ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে উপাসনালয় এবং কমিউনিটি সেন্টার তৈরির অধিকারও এর অন্তর্ভুক্ত।’
ধর্মীয় সহিষ্ণুতার কারণেই ‘আমাদের শত্রুদের’ থেকে যুক্তরাষ্ট্র আলাদা বলে মন্তব্য করেন ওবামা। সূত্র : বিবিসি, এএফপি, রয়টার্স