ডিম আগে এসেছে না মুরগি? অনেক দিনের পুরোনো একটি প্রশ্ন। দু-একবার প্রশ্নের সমাধানের দাবি করা হয়েছে। এবার দাবিটি করেছেন যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব শেফিল্ড ও ইউনিভার্সিটি অব ওয়ারউইকের একদল বিজ্ঞানী। তাঁদের দাবি, মুরগিই আগে এসেছে। ব্রিটেনের ডেইলি এক্সপ্রেস পত্রিকার খবরে এ কথা জানানো হয়েছে।
https://i1.wp.com/www.prothom-alo.com/resize/maxDim/460x1000/img/uploads/media/2010-07-14-16-43-04-018283300-murgi.jpg?w=1080
গবেষণায় জানা গেছে, ডিমের খোসা সৃষ্টি হওয়ার ক্ষেত্রে ওভোকলেইডিন (ওসি-১৭) নামের একটি প্রোটিন কাজ করে। এ প্রোটিন প্রজননক্ষম মুরগির জরায়ুতে পাওয়া যায়। আর এ থেকেই বিজ্ঞানীরা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন, মুরগিই আগে এসেছে। গবেষণাটি পরিচালনার জন্য বিজ্ঞানীর দল হেক্টর নামের একটি উচ্চপ্রযুক্তির কম্পিউটার ব্যবহার করে ডিমের খোসার মৌলিক গঠন বিশ্লেষণ করে। তাঁরা আবিষ্কার করেন, ওসি-১৭ প্রোটিন ডিমের খোসা গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করার একটি নিয়ামক হিসেবে কাজ করে।
গবেষক দলের প্রধান ইউনিভার্সিটি অব শেফিল্ডের কলিন ফ্রিম্যান বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই সন্দেহ করা হতো, ডিম আগে এসেছে। কিন্তু এখন আমাদের কাছে বিজ্ঞানভিত্তিক প্রমাণ রয়েছে, মুরগি আগে এসেছে।’ তিনি বলেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ ওই প্রোটিন আগেই শনাক্ত করা হয়েছিল এবং ডিমের গঠনে এর ভূমিকা রয়েছে, তা-ও জানা ছিল। কিন্তু এ গবেষণায় আমরা খুব ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখেছি, প্রোটিনটি কীভাবে খোসা গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে।’
(প্রথম আলো)